কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে চিকিৎসার অবহেলায় অন্তঃসত্ত্বার মৃত্যুর অভিযোগ

 

কুষ্টিয়া: কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে চিকিৎসার অবহেলায় রমনী খাতুন (২৫) নামে এক অন্তঃসত্ত্বার মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে বিশ্বাস ক্লিনিক অ্যান্ড সনো ডায়াগনস্টিক সেন্টারে বিরুদ্ধে। গর্ভের সন্তানসহ রমনীর মৃত্যুতে এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়, পরে প্রশাসন গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।

রোববার (০৮ নভেম্বর) দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বেসরকারি ওই ক্লিনিকটি সিলগালা করে দিয়েছে দৌলতপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আজগর আলী।

রমনী খাতুন উপজেলার বেগুনবাড়িয়া এলাকার শ্রমিক বাচ্চুর স্ত্রী। প্রথম সন্তান জন্ম দিতে গিয়ে মারা গেলেন রমনী।

দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহুরুল আলম বাংলানিউজকে জানান, শনিবার (০৭ নভেম্বর) দিবাগত রাত ৩টার দিকে প্রসব বেদনা নিয়ে রমনীকে বিশ্বাস ক্লিনিক অ্যান্ড সনো ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি করা হয়।

রোববার (০৮ নভেম্বর) সকাল ৮টা পর্যন্ত তাকে কোনো চিকিৎসা দেওয়া হয়নি। পরে চিকিৎসক এসে চিকিৎসা দেওয়া শুরু করতেই তার মৃত্যু হয় বলে অভিযোগ করেন ওই নারীর পরিবারের লোকজন।

পরে সকাল ১০টার দিকে তারা ক্লিনিকের সামনে বিক্ষোভ করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে স্থানীয়দের শান্ত করেন। সেইসঙ্গে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।
দুপুরে দৌলতপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আজগর আলী ওই ক্লিনিকটি ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সিলগালা করে দিয়েছেন। ঘটনার পর থেকেই ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ পলাতক বলেও জানান ওসি

Facebook Comments Box

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *