শনিবার | ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



সত্যের পথে অবিচল | ২৪ ঘণ্টা বাংলা সংবাদ

দৌলতপুর উপজেলার চুনিয়ামোড় থেকে নওদাপাড়া গ্রামের রাস্তার বেহাল দশা, দেখার কেউ নেই!

শামীম আশরাফ

দৌলতপুর উপজেলার চুনিয়ামোড় থেকে নওদাপাড়া গ্রামের রাস্তার বেহাল দশা, দেখার কেউ নেই!

দৌলতপুর উপজেলার চুনিয়ামোড় থেকে নওদাপাড়া গ্রামের রাস্তার বেহাল দশা, দেখার কেউ নেই!


দৌলতপুর উপজেলায় ৯নং রিফাইতপুর ইউনিয়নে নজর ফকিরের আস্তানা হিয়ারিং রোড নামে পরিচিত। বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ভক্ত ও অনুসারীরা এই সড়কে যাতায়াত করে থাকেন।

 


বড় বড় আমলারাও এই সড়কের সাথে ব্যাপক পরিচিত রয়েছে। রয়েছে তাদের এই সড়কে আসা যাওয়াও। তার একটি কারণ এই সড়কেই রয়েছে নজর ফকিরের মাজার। রাস্তায় বড় বড় খানা-খন্দে ভরা। ভোগান্তিতে সাধারণ মানুষ হলেও নজরে নেই কর্তৃপক্ষের।

দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে সামান্য বৃষ্টিতে এই রাস্তার ওপর জমে থাকে পানি।


আশপাশের সব রাস্তা পাকা হলেও এ রাস্তাটি পাকা করার কোনো উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে না। নির্বাচন এলে রাজনৈতিক নেতারা রাস্তাটি পাকা করার প্রতিশ্রুতি দিলেও পরে আর পাকা করার উদ্যোগ নেয়া হয় না বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এলাকবাসী।

শুধু তাই নয় এই সড়কের দুই পাশে বাড়িঘর সহ বিভিন্ন ধরনের দোকানপাট গড়ে উঠেছে। এই সড়কটি সংস্কার না হওয়ায় চুনিয়ামোড় হতে নজর ফকিরের মাজার পর্যন্ত সড়কটির পরিনত হয়েছে বেহাল দশায়। রাস্তা খারাপ হওয়ায় সাধারণ জনগণের পাশাপাশি দুর্ভোগ পোহাতে হয় রোগীদেরও। খানা-খন্দে ভরা রাস্তায় প্রায়ই ঘটে ছোট-বড় দুর্ঘটনা।

 

এই এলাকার বাসিন্দারা জানান, সব সময় কাজের জন্য যাতায়াত করতে হয় এই সড়ক দিয়ে। উপজেলায় যাওয়ার একমাত্র পথ এটি। কিন্তু সড়কটি সংস্কার না হওয়ায় সড়কটির বিভিন্ন স্থানে ইট উঠে গেছে, ভরে গেছে খানা-খন্দে। মাঝে মধ্যেই দুর্ঘটনার কবলে পড়তে হয় যাত্রীদের। সামান্য বৃষ্টি হলেই কোথাও কোথাও হাঁটু পানি জমে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে যায় সড়কটি। রাস্তায় পানি জমে থাকলে কোন জায়গাটা ভাঙা তা বোঝা যায় না। ফলে যানবাহনের চাকা ভাঙা স্থানে পড়ে ঘটে দুর্ঘটনা। দ্রত সড়কটি সংস্কার হলে কমবে মানুষের প্রতিদিনের দুর্ভোগ। রাস্তার হেয়ারিং তাই রাস্তার ইট উঠে গেছে।

স্থানীয়রা সড়কটি নিয়ে খুবই বিপদে আছেন। সড়কটি দ্রত সংস্কারের দাবি জানান এলাকাবাসী।

এ রাস্তাটিই এ এলাকার ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়াতের একমাত্র পথ। গ্রীষ্মকাল এবং বর্ষাকালে শিক্ষার্থীদের কষ্টের সীমা থাকে না। এ রাস্তায় চলাচলের বাধা একটাই- এর বেহাল দশা। রাস্তাটি পাকা হলে ঐ এলাকার মানুষের কষ্ট দূর হবে। একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের এবং এ অঞ্চলের মানুষের দিকে তাকিয়ে রাস্তাটি পাকা করার উদ্যোগ গ্রহণের জন্য কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছেন এলাকাবাসী।

Facebook Comments Box

Posted ২:৪৪ অপরাহ্ণ | সোমবার, ৩০ আগস্ট ২০২১

protidinerkushtia.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

মোঃ শামীম আসরাফ, সম্পাদক ও প্রকাশক
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় :

ঝাউদিয়া বাবলু বাজার, দৌলতপুর, কুষ্টিয়া ফোনঃ +৮৮ ০১৭৬৩-৮৪৩৫৮৮ ই-মেইল: protidinarkushtia@gmail.com

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রনালয়ে নিবন্ধনের জন্য আবেদনকৃত
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
error: Content is protected !!