বৃহস্পতিবার | ২৬শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ



সত্যের পথে অবিচল | ২৪ ঘণ্টা বাংলা সংবাদ

রোগ-শোকে জরাজীর্ণ শিশু শাহিনার পাশে হাকিমপুর ফাউন্ডেশন 

মোসলেম উদ্দিন, হিলি দিনাজপুর।

রোগ-শোকে জরাজীর্ণ শিশু শাহিনার পাশে হাকিমপুর ফাউন্ডেশন 
মাত্র ৮ বছর বয়সে বিভিন্ন রোগ বাসা বেঁধেছে দিনাজপুরের হিলি বোয়ালদাড় গ্রামের অসহায় হতদরিদ্র মিল শ্রমিক আফরোজা বেগমের মেয়ে শাহিনার শরীরে। আর শিশু শাহিনাকে সুস্থ্য জীবনে ফিরে আনতে পাশে দাঁড়িয়েছে হিলির হাকিমপুর ফাউন্ডেশন। বেশ কয়েক দিন আগে শাহিনার এপেন্ডিসাইটিসের অপারেশন করেন এই সংগঠনটি। বর্তমান শিশুটি সুস্থ্য হলেও চিকিৎসক বলেছেন শাহিনার ফুসফুসেও সমস্যা রয়েছে।
শিশু শাহিনার মা হিলির আরনু জুট মিলের শ্রমিক। দিন ১৮০ থেকে ২০০ টাকা হাজিরা পায়। স্বামী বাবুল মিয়া বেকার, বাড়িতে বসে থাকে, কোন কর্ম করতে পারে না। আফরোজা বেগমের তিন ছেলে-মেয়ে। বড় ছেলে মানুষের দোকানে কাজ করে। জুট মিলে সামান্য রোজগারে স্বামী সন্তানদের নিয়ে কোন রকম খেয়ে না খেয়ে সংসার চলে। এরি মাঝে শিশু শাহিনার শরীরে দেখা দিয়েছে বিভিন্ন রোগ।
শিশু শাহিনার মা আফরোজা বেগম বলেন, আমরা গরীব মানুষ, সামান্য মিল খেটে যা পাই তাই দিয়ে স্বামী ছেলেমেয়েদের নিয়ে কোন মতো চলি। কিছুদিন আগে ছোট মেয়ে শাহিনার এপেন্ডিসাইটিস হয়েছিল। টাকার অভাবে তার অপারেশন করতে পারছিলাম না। বিভিন্ন মহলে মেয়ের অপারেশনের জন্য ঘুরে বেরিয়েছি। অসুস্থ মেয়েকে রেখে কদিন যাবৎ জুট মিলে কাজে যেতে পারিনি। ঘরে কোন খাবার নেই যে রান্না করে বাচ্চাদের খাওয়াবো।
শেষে হাকিমপুর ফাউন্ডেশন নামের একটা সংগঠন আমার মতো অসহায় হতদরিদ্র পাশে দাঁড়িয়েছে। তারা মৃত্যুর মুখ থেকে আমার মেয়ে শাহিনাকে ফিরে এনেছে। তারা আমার মেয়ের এপেন্ডিসাইটিস এর অপারেশনের সব ব্যবস্থা করেছে এবং অপারেশন শেষে ১৫ দিনের মতো খাদ্য সামগ্রী দিয়েছেন।
তিনি আরও জানান, এপেন্ডিসাইটিস ভাল হলেও ডাক্তার বলেছেন আমার মেয়ের ফুসফুসে আরও সমস্য আছে। এখন আমি কি করবো? সমাজ বা দেশে এমন কোন হৃদয়বান মানুষ আছে, যারা আমার এই অসহায় মাসুম বাচ্চার পাশে এসে দাঁড়াবে?
হাকিমপুর ফাউন্ডেশনের স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক রাকিবুল হাসান সাকিব বলেন, মানুষ, মানুষের জন্য। অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোই আমাদের ফাউন্ডেশনের মুল লক্ষ্য। অসহায় শিশু শাহিনার শারীরিক সমস্যা এবং অবস্থা দেখে আমরা তার পাশে দাঁড়িয়েছি। বেশ কিছুদিন ধরে এই ৮ বছর বয়সী শিশু শাহিনার এপেন্ডিসাইটিস হয়েছে। অর্থের অভাবে তার অপারেশন করতে পারছে না তার পরিবার। আমরা তার পাশে দাঁড়িয়েছি।
অপারেশনের সকল ব্যবস্থা করেছি। তাদের পরিবারটি চলার জন্য আমরা ১৫ দিনের খাদসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছি। এখন শাহিনা সুস্থ্য, কিন্তু চিকিৎসক বলেছেন শিশুটির ফুসফুসে সমস্যা আছে।
এবিষয়ে হাকিমপুর ফাউন্ডেশনের সভাপতি সোহাগ সরকার বলেন, অসহায় শিশু শাহিনার পাশে আমাদের ফাউন্ডেশনের পাশাপাশি  হিলির উদ্দীপ্ত তরুণ নামের  আরও একটি সংগঠন কাজ করছেন। শাহিনার এপেন্ডিসাইটিসের অপারেশন সফল হয়েছে। তবে তার ফুসফুসে সমস্যা রয়েছে। আমরা শিশুটির পরিবারকে বলেছি, আমরা আপনাদের পাশে আছি। ডাক্তারের সাথে কথা বলুন এবং শাহিনাকে সুস্থ্য করতে আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করবো।
তিনি আরও বলেন, শাহিনার পরবর্তী চিকিৎসা অনেক ব্যয়বহুল। যদি কোন সংগঠন, সমাজের বৃত্তবান ও হৃদয়বান ব্যক্তি এবং সরকার যদি এই অসহায় শিশুটির পাশে দাঁড়ায়,তাহলে শাহিনা আবারও আট-দশ জন সুস্থ্য শিশুর মতো বাঁচতে পারবে।
অসুস্থ শিশু শাহিনার মা আফরোজা বেগমের ফোন নাম্বার=০১৯১৩৭২০২৬৪।
Facebook Comments Box


Posted ৭:৫১ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

protidinerkushtia.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

মোঃ শামীম আসরাফ, সম্পাদক ও প্রকাশক
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় :

ঝাউদিয়া বাবলু বাজার, দৌলতপুর, কুষ্টিয়া ফোনঃ +৮৮ ০১৭৬৩-৮৪৩৫৮৮ ই-মেইল: protidinarkushtia@gmail.com

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রনালয়ে নিবন্ধনের জন্য আবেদনকৃত
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
error: Content is protected !!