সোমবার | ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



সত্যের পথে অবিচল | ২৪ ঘণ্টা বাংলা সংবাদ

শেরপুরে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ জাতীয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা।

শেরপুরে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ জাতীয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা।

 


স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৭ই মার্চ ঐতিহাসিক ভাষণ এর উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদের উদ্যোগে শেরপুর বাজারে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় ।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মো: মোফাজ্জেল হক, সভাপতি বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ কুষ্টিয়া জেলা শাখা ও সদস্য তথ্য গবেষণা উপকমিটি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মো: আসমত আলী মাস্টার, সাংগঠনিক সম্পাদক (সাবেক) বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ দৌলতপুর উপজেলা শাখা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা কাওসার আলী বিশ্বাস, উপদেষ্টা বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ দৌলতপুর উপজেলা শাখা, মো: সাইফুল ইসলাম জাদু মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ হোগলবাড়িয়া ইউনিয়ন, মো: জাহেরুল ইসলাম, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ দৌলতপুর উপজেলা শাখা, তোফাজ্জেল হোসেন হাবলু সহ সভাপতি বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ দৌলতপুর উপজেলা শাখা, মো: রুহুল আমিন, সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ খলিশাকুন্ডি ইউনিয়ন, মো: শহিদুল ইসলাম, সিনিয়র সহ সভাপতি আওয়ামী যুবলীগ পিয়ারপুর ইউনিয়ন শাখা, মো: রবজেল হোসেন, সাবেক যুবলীগ নেতা, মো: ছইমুদ্দিন মেম্বার, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা, পরিচালনায় মো: আকরাম হোসেন, যুগ্ম আহ্বায়ক জাতীয় শ্রমিকলীগ দৌলতপুর উপজেলা, সভাপতিত্ব করেন মো: বেলায়েত হোসেন বিশু, সাবেক ইউপি সদস্য পিয়ারপুর ইউনিয়ন পরিষদ।


বেলায়েত হোসেন বিশুর সভাপতিত্বে মো: মোফাজ্জেল হক বলেন ১৯৭১ সালের এই দিনে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে (রেসকোর্স ময়দান) মুক্তিপ্রেমী বিশাল জনসমুদ্রে দাঁড়িয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯ মিনিট ধরে দেয়া ভাষণে বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দেন।

এদিন লাখ লাখ মুক্তিকামী মানুষের উপস্থিতিতে বজ্রকণ্ঠে পাকিস্তানি শাসকদের হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছিলেন, ‘সাত কোটি মানুষকে দাবায়ে রাখতে পারবে না। মরতে যখন শিখেছি, তখন কেউ আমাদের দাবায়ে রাখতে পারবে না। রক্ত যখন দিয়েছি, আরও দেবো। এদেশের মানুষকে মুক্ত করে ছাড়বো- ইনশাআল্লাহ। এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম। জয় বাংলা।


এসময় বক্তারা বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা করেন। এই ভাষণ সমগ্র বাঙালি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ এবং স্বাধীনতার মন্ত্রে উজ্জীবিত করে। কোনো ধরনের আপোসের পথে না গিয়ে বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে সাড়া দিয়ে দেশের স্বাধীনতা অর্জনে ৩০ লাখ মানুষজীবন উৎসর্গ করে, যা বিশ্ব ইতিহাসে নজীরবিহীন। বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের মূল লক্ষ্য ছিল পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ ঔপনিবেশিক শাসন-শোষণ ও নিয়ন্ত্রণ থেকে বাঙালির জাতীয় মুক্তি।

এছাড়াও বক্তারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জীবীত হয়ে দেশপ্রেমে উদ্ভুদ্ধ হওয়ার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও চেতনা আগামী প্রজন্ম থেকে প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে সকলকে আহবান জানান।

 

Facebook Comments Box

Posted ২:২৩ অপরাহ্ণ | বুধবার, ০৮ মার্চ ২০২৩

protidinerkushtia.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

মোঃ শামীম আসরাফ, সম্পাদক ও প্রকাশক
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় :

ঝাউদিয়া বাবলু বাজার, দৌলতপুর, কুষ্টিয়া ফোনঃ +৮৮ ০১৭৬৩-৮৪৩৫৮৮ ই-মেইল: protidinarkushtia@gmail.com

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রনালয়ে নিবন্ধনের জন্য আবেদনকৃত
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
error: Content is protected !!